চুলের নিক দূর করার উপায় - উকুন মারার শ্যাম্পু

প্রিয় পাঠকগণ আজকের এই পোস্টের আলোচ্য বিষয় হলো চুলের নিক বা উকুন দূর করার ঘরোয়া কিছু উপায়। আপনি যদি আপনার মাথার উকুন বা নিক নিয়ে ভোগান্তিতে থাকেন তাহলে আজকের এই পোস্টটি আপনার জন্য। এই পোস্টটি আপনি জানতে পারবেন কিভাবে চুলের নিক দূর করতে হয়।
                                                             
উকুন মারার শ্যাম্পু

ভূমিকা

উকুন বা নিক এই দুটি শব্দের সাথে আমরা প্রায় সবাই পরিচিত। উকুন বা নিক আমাদের মধ্যে প্রায় 90% মানুষের মাথায় একটা সময় ছিল বা এখনো আছে। আর এই উকুন মাথায় থাকলে কতটা সমস্যা হয় সেটা আমাদের সবারই জানা। তাই আজকের এই পোস্টে আমরা এমন কিছু পদ্ধতি বা উপায় আপনাদেরকে জানাবো যেগুলো ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার চুলের কোন বা নিক দূর করতে পারবেন। চলুনা দেরি করে শুরু করা যাক।

উকুন কিভাবে সৃষ্টি হয়?

সাধারণত উকুন বা নিক উড়তে বা লাফ দিতে পারে না। সাধারণত একজনের মাথা, শরীর থেকে সরাসরি অন্যজনের মাথা, শরীরে চলে যেতে পারে। তাছাড়া আমরা যদি একজনের চিরুনি বা ব্রাশ বা বালিশ ব্যবহার করি তার মাধ্যমে উকুন আমাদের মাথায় চলে আসতে পারে।

দ্রুত উকুন দূর করার উপায়

আমাদের মাথার চুলের মধ্যে যে সকল উকুন থাকে সেগুলো দূর করার জন্য আমরা অনেক ধরনের পদ্ধতি বা ঔষধ ব্যবহার করে থাকি। তবে সবগুলো পদ্ধতি কি কার্যকর এ বিষয়ে আপনি নিশ্চিত ভাবে বলতে পারবেন না। তাই এখানে এমন কিছু কার্যকরী উপায় আপনাদের জানানো হলো যেগুলো আসলেই মাথার উকুন দূর করতে সাহায্য করে। চলুন এখানে এক নজরে উপায় গুলো দেখে নেয়া যাক এবং ধাপে ধাপে প্রত্যেকটি উপায় গুলির বিশ্লেষণ করা যাক।
  • উকুন দূর করার শ্যাম্পুর নাম
  • মাথার উকুন দূর করার ঘরোয়া উপায়
  • ভিনেগার দিয়ে উকুন দূর করার উপায়
  • রসুন দিয়ে উকুন দূর করার উপায়
  • নিম পাতা দিয়ে উকুন মারার উপায়

উকুন দূর করার শ্যাম্পুর নাম

প্রথমে বলবো মাথা থেকে উকুন দূর করার জন্য কোন রকমের হারবাল বা পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া যুক্ত শ্যাম্পু ব্যবহার না করাই ভালো. কারণ এইসব শ্যামপুর ভিতরে ক্ষতিকারক এসিড বা ক্ষতিকারক উপাদান মেশানো থাকে যেগুলো আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য একদমই ভালো নয়. তাই আমারও চেষ্টা করেছি কোন শ্যাম্পু আপনাকে সাজেস্ট না করে এমন কিছু ঘরোয়া উপায় বা প্রাকৃতিক উপায় আপনাদের সাথে শেয়ার করব। যাতে আপনারা কোনরকম পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ছাড়াই মেয়েদের চুলের উকুন দূর করতে পারেন। তবে আপনি যদি চান কোন শ্যাম্পু ব্যবহার করবেন তাহলে নিচের শ্যাম্পু টি ব্যবহার করতে পারেন।
                                                           
উকুন মারার শ্যাম্পু

ভিনেগার দিয়ে উকুন দূর করার উপায়

অলিভ অয়েল, অ্যাপেল সিডার ভিনেগার, রসুন বাটা একসঙ্গে মিশিয়ে একটা মিশ্রণ বানিয়ে সেটা দুই ঘন্টা মাথায় লাগিয়ে রাখতে হবে. তারপর পরিষ্কার পানি দিয়ে চুল ধুয়ে শুকিয়ে নিতে হবে এবং তারপর সাদা ভিনেগার চুলের উপর স্প্রে করতে হবে. এরপর চিকন দাঁতওয়ালা চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়াতে হবে. আর যদি আপনি আসলেই নিজের শরীরের কেমিক্যাল ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনি ডগ ফ্লি ও পারমিথ্রিন দেয়া শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন।

রসুন দিয়ে উকুন দূর করার উপায়

মাথার উকুন নিরাময়ের জন্য প্রথমে ৮ থেকে ১০টা রসুনের কোয়া থেতলে সেগুলির পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে এরপর তাতে কয়েক চা চামচ লেবুর রস মেশাতে হবে এরপর এই মিশ্রণটি চুলের ত্বকে লাগিয়ে ৪০ মিনিট পর শ্যাম্পু দিয়ে ফেলতে হবে. রসুনের এই তীব্র গন্ধ চুলের উকুন ও উকুনের ডিম ধ্বংস করার জন্য যথেষ্ট।

নিম পাতা দিয়ে উকুন মারার উপায়

প্রথমে আপনাকে যেটি করতে হবে সেটা হল, নিম পাতা মিহি করে বেটে নিতে হবে এরপর পরিষ্কার চুলে আগাগোড়া নিমপাতার এই পেস্ট মেখে নিতে হবে। মনে রাখবেন এই পেস্ট মাখার সময় সমগ্র চুল এবং মাথার তালুতেও যেন এই পেস্ট লেগে যায়। এভাবে দুই থেকে তিন ঘন্টা এই পেস্ট মেখে থাকুন তারপর যেকোনো শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন।
মাথার উকুন দূর করার জন্য কিছু ঘরোয়া উপায় নিম্নলিখিত হতে পারে:

মাথার উকুন দূর করার ঘরোয়া উপায়

  1. বেশি যাত্রাবা ঘুম চুলের জন্য ক্ষতিকর কারণ এর ফলে মাথায় উকুনের মাত্রা আরো বেড়ে যায় তাই যাত্রা কম করার চেষ্টা করতে হবে।
  2. নিয়মিত নিজের মাথা ভালো মানের কোন শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। এতে চুলে কোন ধরনের অপরিষ্কার কিছু থাকে না এবং মাথার চুল উকুন মুক্ত থাকে।
  3. মাথার উকুন দূর করতে খাবার একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আপনি যদি মাথার উকুন নিয়ে চিন্তিত থাকেন তাহলে অম্লীয় এবং প্রোটিন জাতীয় খাবার খেতে পারেন। এতে আপনার চুল ও মাথা দুটি সুস্থ থা্কে।
  4. অনেকক্ষণ এক জায়গায় বসে থাকা এটিও উকুন বেশি হওয়ার কারণ। অনেকক্ষণ এক জায়গায় বসে থাকলে মাথা দুর্বল হয়ে যায় এবং উকুন বা নিকের মাত্রা বেড়ে যেতে পারে। তাই চেষ্টা করবেন একটানা অনেকক্ষণ বসে না থেকে কিছুক্ষণ শরীরের বিশ্রাম দেওয়া।
  5. কথায় আছে যে দাঁত থাকতে দাঁতের মর্ম বোঝেনা। তেমনি আপনার মাথায় যখন ঘন চুল থাকবে তখন আপনার উচিত প্রতিদিন নিজের চুলের খেয়াল রাখা, প্রতিদিন গোসলের পর ভালোভাবে চুল আঁচড়ানো, এবং চুলে স্বাস্থ্যকর তেল দেওয়া।
এই সমাধানগুলি মাথার উকুন দূর করার সামান্য উপায় হতে পারে, তবে মাথার উকুন স্থিতির কারণ এবং গুরুত্বের উপর নির্ভর করে।

আমাদের শেষ কথা

পাঠকগণ আজকের এই পোস্টটিতে আপনাদের ভালো লেগে থাকে এবং এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনি যদি চুলের উকুন দূর করার কোন সমাধান পেয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই এটি শেয়ার করে দিবেন। যাতে যারা এই সমস্যায় ভুগছে তারা এই সমস্যাটির সমাধান পায়। আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করার জন্য ধন্যবদ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url