সারা বিশ্বে ধূমকেতু নিশিমুরা দেখা যাবে আজ - জানুন বিস্তারিত

আপনি যদি নিশিমুরা ধুমকেতু সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে আপনি সঠিক জায়গায় এসেছেন। এই পোস্টে আমরা নিশিমুরা ধূমকেতু সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব। নিশিমুরা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পুরো পোস্টটি পড়ুন।
                                       
ধুমকেতু

আজকে অর্থাৎ ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ এ বিশ্ববাসী বিরল এক মুহূর্তের সাক্ষী হতে চলেছে। একটি ধুমকেতু যা একমাস আগে আবিষ্কৃত হয়েছিল সেটি আজকে পৃথিবী অতিক্রম করবে। অতিক্রম করার সময় প্রতিটি মানুষ এই ধুমকেতু খালি চোখে দেখতে নূ। 

এই ধূমকেতুর রং সবুজ। গত 11 আগস্ট রাতে হিদিও নিশিমুরা নামক এক জাপানের জ্যোতির্বিদ এই ধূমকেতুর সন্ধান পান। তিনি অত্যাধিক আধুনিক এবং যোগ্যতা সম্পন্ন টেলিস্কোপ এর মাধ্যমে এই ধূমকেতু টির ছবি তোলেন। তাই এই জ্যোতির্বিদের নামের অনুসারেই ধুমকেতুটির নামকরণ করা হয়। এই ধুমকেতু টি আসলে বরফ আর পাথরের একটা আবরণ যার আকার ধারণা করা হচ্ছে এক কিলোমিটার।

বিজ্ঞানের মতে আজ মঙ্গলবার পৃথিবী থেকে 12 কোটি 50 লাখ কিলোমিটার দূর দিয়ে উক্ত দুটি পৃথিবীকে অতিক্রম করবে। এই সময় ওই ধূমকেতুর গতি থাকবে দুই লাখ চল্লিশ হাজার মাইল। বিজ্ঞানী আরো মনে করছেন এই ধুমকেতু টি ৪৩৭ বছর পর আবারো পৃথিবী দিয়ে অতিক্রম করবে। 

জ্যোতির্বিদরা বলেছেন এই ধুমকেতুটি খালি চোখে দেখা যাবে টেলিস্কোপের কোন প্রয়োজন নেই। নাসা বলেছে এই এটি যখন সৌরজগৎ অতিক্রম করবে তখন এর উজ্জ্বলতা আরো বেড়ে যাবে।প্যারিসের এক জ্যোতির্বিদ বলেছেন এটি সত্যিই একটা বিড়াল ঘটনা এত জলদি ধুমকেতুর সন্ধান পাওয়া এবং সেই ধুমকেতুর দৃশ্যমান হওয়া, এটা একটি বিরল ঘটনা।

বার্ড গিপশন নামক এক অধ্যাপক যিনি যুক্তরাজ্যের ইউনিভার্সিটি অফ হালের জ্যোতিঃ পদার্থবিদ্যা বিষয়ক কেন্দ্রের পরিচালক তিনি বলেছেন,আমি যদি এভাবে বলি যে প্রত্যেকটি মানুষের জীবনে ধুমকেতু দেখার সুযোগ একবারে আসবে তাহলে এই কথাটি বাড়িয়ে বলা হবে না। অর্থাৎ প্রতিটি মানুষের জীবনে একবার হলেও সে ধুমকেতু দেখতে পারবে‌।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url